spot_img
শনিবার, মে ২৫, ২০২৪
শিরোনামঃ
||বই খাতা কলমের পরিবর্তে শৈলকূপায় দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ছুটে চলেছে শিশু! ফেসবুকে ভাইরাল||নড়াইলের লোহাগড়া বাজারে দুইটি মোবাইল দোকানে চুরি||নড়াইলে ২৮ মে জেলা যুবলীগের সম্মেলন উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা||২৩ মে ইতনার গণহত্যা দিবস, ৫০/৬০ গ্রামবাসীকে গণহত্যা করা হয়||নড়াইল সদর উপজেলা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ ও বিতর্কিত করার চেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন||শ্রীমঙ্গলে বিষ খাইয়ে প্রতিবন্ধী সন্তান হত্যার অভিযোগে বাবা-মা গ্রেফতার||শ্রীমঙ্গলে ৮ কেজি গাঁজাসহ আটক ২||নড়াইলে ১০০ কেন্দ্রের মধ্যে ৯৫ কেন্দ্রের ভোটে এগিয়ে থাকার পরেও আমাকে হারিয়ে দেয়া হয়েছে সংবাদ সম্মেলনে তুফান||শৈলকুপায় মটরসাইকেল মার্কায় ভোট দেওয়ার অপরাধে উভয় গ্রুপের ২০ বাড়িঘর ভাংচুর লুটপাট আহত ৭||৪০ বছরের ইউপি চেয়ারম্যান এবার উপজেলার চেয়ারম্যান নির্বাচিত||শৈলকুপায় ইজি বাইকের ধাক্কায় গৃহবধুর মৃত্যু||মৌলভীবাজারে ৫ প্রতিষ্ঠানকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা||বড়াইগ্রামে পানিতে ডুবে শিশু ও ট্রাক্টর চাপায় যুবক নিহত||শ্রীমঙ্গলে বিশ মেডিটেশন দিবস পালিত||বাঘায় তিন পদে ৮ প্রার্থীর মাঝে প্রতীক বরাদ্দ
Homeবিনোদনঅস্কারের মঞ্চে নগ্ন হলেন জন সিনা

অস্কারের মঞ্চে নগ্ন হলেন জন সিনা

ডেস্ক রিপোর্ট

- Advertisement -spot_img

সেরা কস্টিউম ডিজাইন উপস্থাপনের জন্য অস্কারের মঞ্চে ওঠার সময় গায়ে একটা সুতোও রাখলেন না জন সিনা। আপাতত যা সবচেয়ে বড় আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। গত বছর অস্কারের আলোচ্য বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছিল চড়-কাণ্ড। আর এবার তা দাঁড়াল গিয়ে নগ্নতায়।

সেরা কস্টিউম পুরস্কার ঘোষণা করতে গিয়েই এ কাণ্ড করেছেন জন। ১১ মার্চ লস অ্যাঞ্জেলেসের ডলবি থিয়েটারে চলা অস্কার পুরস্কার মঞ্চে জনকে ডেকে নিয়েছিলেন উপস্থাপক জিমি কিমেল। তখনই বিবস্ত্র অবস্থায় মঞ্চে আসেন জন। লজ্জা নিবারণের জন্য হাতে ছিল এক টুকরো কাগজ।

জন তার প্রাইভেট পার্ট একটি বড় আকারের বিজয়ীর নাম থাকা খাম দিয়ে ঢেকে রেখেছিলেন এবং দর্শকদের প্রত্যেকের হতবাক প্রতিক্রিয়ার মাঝেই বলে ওঠেন, ‘পোশাক খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সম্ভবত সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জিনিস আছে!’

মনোনীতদের নাম পড়তে পড়তে আলো নিভে আসতেই কয়েকজন সহকারী তার জন্য একটি চমৎকার গাউন নিয়ে আসেন। যাই হোক, পুয়োর থিংস ছবির জন্য অ্যাওয়ার্ড তুলে দেয়া হলো মার্টিন স্করসেসি-এর হাতে।

১৯৭৪ রবার্ট ওপেল নামে পরিচিত একজন ‘স্ট্রিকার’ একাডেমি অ্যাওয়ার্ডের মঞ্চজুড়ে শান্তির চিহ্ন ফ্ল্যাশ করার সময় এভাবেই দৌড়েছিলেন। সেটারই পুনরাবৃত্তি ঘটল ২০২৪ সাল এসে। মূলত কস্টিউমের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরতেই এ কাণ্ডটি করেন জন সিনা।
সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -spot_img
Stay Connected
16,985FansLike
2,458FollowersFollow
61,453SubscribersSubscribe
সর্বশেষ খবর
আরও পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here