spot_img
সোমবার, জুন ১৭, ২০২৪
শিরোনামঃ
||কত খ্রিস্টাব্দে মক্কা বিজয় হয়?||ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠাতা কে?||ভারত কর্তৃক সম্প্রতি চাঁদে প্রেরিত চন্দ্রযানের নাম কি||ইনফর্মকে মনে হয় আমার গায়ের চামড়া -সেনাপ্রধান||নড়াইলের পেড়লীতে এবারও ঈদ করতে পারছেন না ২ শতাধিক পরিবার আজাদ হত্যা মামলা নিয়ে উত্তেজনা||ভারতীয় জনতা পার্টি||হাতুড়িপেটায় ব্যস্ত নড়াইলের কামার পাড়া||শ্রীমঙ্গলে কোরবানির জন্য প্রস্তুুত ১২ হাজার পশু||নড়াইলে মোটরসাইকেলের বেপরোয়া গতিতে প্রাণ গেল কিশোরের||সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস||নড়াইলে পুলিশ সদস্যের ‘বিশেষ অঙ্গ’ কেটে দেয়া সেই ডলির বিরুদ্ধে মামলা||নড়াইলে ঘেরের পাশে কিশোরের মরদেহ উদ্ধার||শ্রীমঙ্গলে ১৪৭ ভূমিহীন পরিবারের মাঝে নামজারি খতিয়ানের পর্চা বিতরন||প্রকাশ্যে ধূমপান একটি||বিটিএস-এর জিনকে জড়িয়ে ধরার সুযোগ পাবেন ১০০০ ভক্ত, কেন ও কিভাবে?
Homeসাহিত্যদেয়ালের দেশ

দেয়ালের দেশ

- Advertisement -spot_img

দেয়ালের দেশ” একটি বাংলা ছোটগল্প, যা প্রখ্যাত সাহিত্যিক সেলিনা হোসেন রচিত। এই গল্পে লেখিকা সমাজের বিভিন্ন দিক এবং মানসিকতার প্রভাব নিয়ে আলোচনা করেছেন। “দেয়ালের দেশ” গল্পের মাধ্যমে সেলিনা হোসেন সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ এবং তাদের জীবনযাত্রা, বিশেষ করে নারীদের জীবনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেছেন।

গল্পের মূল বিষয়বস্তু
গল্পটি প্রধানত একটি প্রতীকী ব্যঞ্জনা বহন করে যেখানে দেওয়াল সমাজের নানা বাঁধা, প্রতিবন্ধকতা এবং সীমাবদ্ধতাকে প্রতিনিধিত্ব করে। সেলিনা হোসেন এই গল্পে সমাজের রূঢ় বাস্তবতা, মানুষের মনস্তাত্ত্বিক জটিলতা এবং নারীদের সংগ্রামকে ফুটিয়ে তুলেছেন।

প্রধান চরিত্র এবং কাহিনী
গল্পের প্রধান চরিত্র হলো একজন নারী, যিনি সমাজের বিভিন্ন বাধা-বিপত্তি মোকাবিলা করে নিজের অবস্থান তৈরি করতে চেষ্টা করেন। তাঁর জীবনের বিভিন্ন পর্যায়, সংগ্রাম এবং চ্যালেঞ্জগুলো কাহিনীতে বিশদভাবে বর্ণনা করা হয়েছে। কাহিনী মূলত সমাজের প্রথাগত ধারণা এবং সেই ধারণার বিরুদ্ধে নারীর সংগ্রামের গল্প।

প্রতীকী ব্যঞ্জনা
গল্পের শিরোনাম “দেয়ালের দেশ” খুবই প্রতীকী। এখানে ‘দেয়াল’ শব্দটি সমাজের বিভিন্ন রীতিনীতি, প্রথা এবং সামাজিক কাঠামোর প্রতীক। এই দেয়ালগুলো নারীর জীবনকে সীমাবদ্ধ করে রাখে, কিন্তু প্রধান চরিত্রের মাধ্যমে লেখিকা দেখিয়েছেন কীভাবে একজন নারী এই দেয়ালগুলো ভাঙার চেষ্টা করে এবং নিজের স্বাধীনতা অর্জনের চেষ্টা করে।

লেখকের উদ্দেশ্য
সেলিনা হোসেন এই গল্পের মাধ্যমে সমাজের নানান অসঙ্গতি এবং নারীদের অবস্থানের পরিবর্তনের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি করতে চেয়েছেন। সমাজের বিভিন্ন প্রথাগত ধারণা এবং তার প্রভাবের উপর আলোকপাত করে, তিনি পাঠকদের সমাজ পরিবর্তনের আহ্বান জানিয়েছেন।

উপসংহার
“দেয়ালের দেশ” গল্পটি সমাজের বিভিন্ন দিক এবং নারীর জীবনের সংগ্রামকে প্রতিফলিত করে। সেলিনা হোসেনের অনন্য লেখনশৈলী এবং গভীর সমাজবোধের মাধ্যমে গল্পটি একটি শক্তিশালী বার্তা প্রদান করে। এটি শুধুমাত্র একটি গল্প নয়, বরং সমাজের বাস্তবতার প্রতিচ্ছবি এবং পরিবর্তনের অনুপ্রেরণা।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -spot_img
Stay Connected
16,985FansLike
2,458FollowersFollow
61,453SubscribersSubscribe
সর্বশেষ খবর
আরও পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here